পূর্ব রেল‌ওয়ের ‘এক স্টেশন এক পণ্য ‘ প্রকল্প

Hits: 7

পূর্ব রেলওয়ের ‘এক স্টেশন এক পণ্য’ স্টল – স্থানীয় পণ্যের জন্য বৈশ্বিক বাজার সৃষ্টি : স্থানীয় কারিগর ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের জীবনে নতুন প্রাণের সঞ্চার।

ভারত সরকারের ‘ভোকাল ফর লোকাল’ কর্মসূচিকে সমর্থন করার লক্ষ্যে রেল মন্ত্রক ‘এক স্টেশন এক পণ্য’ (ওএসওপি) প্রকল্প চালু করেছে। এই প্রকল্পটি দেশীয় পণ্যের জন্য বাজার সৃষ্টি করছে এবং সমাজের অবহেলিত শ্রেণির জন্য অতিরিক্ত উপার্জনের সুযোগ তৈরি করছে। ভারতীয় রেলওয়ের স্টেশনগুলিতে দেশীয় পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রয়ের জন্য নির্দিষ্ট স্টল বা ভ্রাম্যমাণ ট্রলি স্থাপন করা হয়েছে।

পূর্ব রেলওয়ে এখন পর্যন্ত ২৯৮ টি ‘এক স্টেশন এক পণ্য’ স্টল তৈরি করেছে, এর মধ্যে ১০০ টি হাওড়া বিভাগে, ১৪৩ টি শিয়ালদহ বিভাগে, ২৭ টি আসানসোল বিভাগে এবং ২৮ টি মালদা বিভাগে অবস্থিত। বর্তমানে, ১৩৫ টি স্টল এই বিভাগগুলিতে কার্যকর রয়েছে:

  • হাওড়া বিভাগ: ৩০ টি
  • শিয়ালদহ বিভাগ: ৬৪ টি
  • আসানসোল বিভাগ: ১৭ টি
  • মালদা বিভাগ: ২৪ টি
    এছাড়াও, ১৬৩ টি ‘এক স্টেশন এক পণ্য’ স্টল তৈরি করা হয়েছে এবং সেগুলি শীঘ্রই চালু হবে।

প্রধান উদ্দেশ্য:

  • স্টেশনগুলিতে বিক্রয় কেন্দ্রের মাধ্যমে স্থানীয় পণ্যের প্রচার করা।
  • যাত্রীদের স্থানীয় পণ্য ক্রয়ের সুযোগ করে দেওয়া।
  • সমাজের অবহেলিত শ্রেণির জন্য আয়ের সুযোগ সৃষ্টি করা।

কার্যক্রমের পরিধি ও নির্দেশিকা:

  • স্টলগুলিতে স্থানীয় পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রয় করা হবে।
  • হস্তশিল্প, কাপড়, ঐতিহ্যবাহী পোশাক এবং স্থানীয় কৃষিজাত পণ্যগুলি এই প্রকল্পের আওতায় বিক্রি করা যাবে।
  • স্থানীয় উৎপত্তির ভৌগোলিক স্বীকৃতি (জিআই) ট্যাগযুক্ত পণ্যগুলিকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

কর্ম পরিকল্পনা:

  • সোশ্যাল মিডিয়া এবং বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রচার।
  • ই-পোস্টার এবং ঘোষণার মাধ্যমে স্টেশনে ‘এক স্টেশন এক পণ্য’ সম্পর্কিত তথ্য প্রদর্শন।
  • হস্তশিল্প মেলা ও উৎসবে সরাসরি কারিগরদের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য তত্ত্বাবধায়কদের প্রেরণ।

পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক, শ্রী কৌশিক মিত্র বলেন, “ ‘এক স্টেশন এক পণ্য’-এর মতো উদ্যোগের মাধ্যমে পূর্ব রেলওয়ে এই অঞ্চলের স্থানীয় প্রতিভার বিকাশে এবং সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে সমুন্নত করতে বদ্ধপরিকর। বাংলার দেশীয় শিল্প ও পণ্যের সরাসরি প্রদর্শন উপভোগ করতে এবং এই প্রকল্পের সাফল্যে অবদান রাখতে আমরা যাত্রী ও দর্শকদের আহ্বান জানাই।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *