সিঙ্গুরে ট্রমা কেয়ার হাসপাতাল

Hits: 5

রাজ্যের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা সাধারণ মানুষের দুর্ঘটনা ঘটিত রোগীদের উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রথম শিলিগুড়ি ট্রমা কেয়ার সেন্টার হাসপাতাল ঘোষণা করেন। তার ঘোষণা মত ২-২-২০১৩ তারিখে সিঙ্গুরে নির্মল কাজ শুরু হয়। গত ২৮ ১১ ১৯ তারিথে সিঙ্গুর ট্রমা কেয়ার সেন্টার হাসপাতাল আর সেন্টারের চিকিৎসা কাজ শুরু হয়। তারপর ভয়ঙ্কর কোভিড সিচুয়েশনে অন্যতম কোভিদ সেন্টার হিসাবে কোভিড রোগীর চিকিৎসা শুরু হয়। তার ফলে ট্রমা কেয়ার সেন্টার হসপিটালের দুর্ঘটনা জনিত চিকিৎসার কাজ বন্ধ থাকে। বন্ধ থাকার ফলে দামি মেশিন অচল হয়ে যাবার আশঙ্কায় মেশিনগুলি আরজিকর ট্রমা কেয়ার, মেডিকেল কলেজ হসপিটাল, মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ইমামবাড়া সদর হাসপাতাল এবং ওয়ালস হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে মেশিনগুলি স্থানান্তরিত করা হয়। স্টাফেদেরও অন্য হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সিক্স লেন কাজ শুরু হয়েছে দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়েতে। ৬ লেনের হওয়ার ফলে দুর্ঘটনা বাড়ছে এবং হুগলি জেলার ওপর দিয়ে ডানকুনি চাপাডাঙ্গা আরামবাগ রোড বৈদ্যবাটি তারকেশ্বর রোড ডানকুনি মগরা বর্ধমান দিল্লি রোড, উত্তর পাড়া -মগরা জিটি রোড, মগরা কানলা আসাম রোড, তারকেশ্বর দশঘড়া হরিপাল ধনিয়াখালি চুঁচুড়া রোড শ্রীরামপুর শিয়াখালা ফুরফুরা রোড প্রভৃতি রোগ রোডগুলিতে ক্রমশই দুর্ঘটনার সংখ্যা বাড়ছে। তারকেশ্বরের মতো তীর্থস্থান শ্রাবণী মেলা ও চৈত্র মাসের গাজন মেলায় লক্ষ লক্ষ তীর্থযাত্রী যাতায়াত করেন প্রতি সোমবার ও পূর্ণিমার দিন হাজার হাজার তীর্থযাত্রী এবং ফুরফুরা ও বাসুবাটি পুরুষ উৎসবে লক্ষ লক্ষ মানুষের সমাগম হয়। বছরের প্রতিদিনই দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়ে চাপ বাড়ছে এবং দুর্ঘটনাও বাড়ছে। দুর্ঘটনা ঘটলে কলকাতা যেতে যেতেই অনেকেরই মৃত্যু ঘটছে। এই পরিস্থিতি বিবেচনা করে দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়ে ধারে ট্রমা সেন্টার চালু হয় শুধু হুগলি জেলাও নয় বর্ধমান জেলা, বীরভূম বাঁকুড়া ও মুর্শিদাবাদ জেলার মানুষও উপকৃত হবে এবং দুর্ঘটনা জনিত রোগীদের দুটো চিকিৎসা পাবে। রোগীকে স্টেবিল করে আরো সু চিকিৎসার জন্য কলকাতার হাসপাতাল গলিতে পাঠানো সহজ হবে।
এই কথা মাথায় রেখে সিঙ্গুরের বিধায়ক তথা রাজ্যের মন্ত্রী বেচারাম মান্না গত ৭.৮.২০২৩ তারিখের ক্যাবিনেট মিটিং এ মুখ্যমন্ত্রী কে সিঙ্গুর ট্রমা কেয়ার সেন্টার হাসপাতালের চালু করার জন্য বিশেষ অনুরোধ জানান। মুখ্যমন্ত্রী তৎক্ষণাৎ চালু করার জন্য মুখ্য সচিব কে নির্দেশ দেন। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ পাওয়ার পর মুখ্য সচিব স্বাস্থ্য প্রধান সচিব নারায়ণ স্বরূপ নিগমের এবং হেলথ ডাইরেক্টর সিদ্ধার্থ নিয়োগী পিজি ট্রমা কেয়ার সেন্টারের প্রধান তথা স্বাস্থ্য দপ্তরের সিনিয়র সচিব সৌম্য পুরকাইত, জেলাশাসক ডক্টর পি দীপপ্রিয়া, সিএমওএইচ রমা ভূঁইয়া, মন্ত্রী বেচারাম মান্না হরিপালের বিধায়ক ডাক্তার করবি মান্না সহ প্রশাসনিক আধিকারিকরা পরিদর্শন ও প্রশাসনিক বৈঠক করেন দ্রুত চালু হবে এই সিঙ্গুরের ট্রমা কেয়ার সেন্টার হাসপাতাল। আগামী মহালয়ার মধ্যেই চালু হবে সিংরের ট্রমা কেয়ার সেন্টার হাসপাতাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *